May 8, 2021

পঞ্চম দফার লক ডাউন এ আনলক ১ চলছে কিন্তু শুভ অনুষ্ঠান না থাকায় মাথায় হাত চিত্র শিল্পী অথাৎ ফটোগ্রাফার দের

দীপক ঘোষ – কলকাতা

এদিকে লক ডাউনের প্রথম ধাপ থেকেই কোনো রকম সামাজিক অনুষ্ঠান, বিয়ের অনুষ্ঠান, ছাড়াও অন্যান্য অনুষ্ঠান একে বারেই বন্ধ হওয়ার ফলে চিত্র শিল্পী অথাৎ ফটোগ্রাফি ব্যবসা একে বারেই ধ্বংসের মুখে পরিনত হতে চলেছে, এবং এই ফটো গ্রাফি স্টুডিও ব্যবসার সঙ্গে যারা যুক্ত আজ তারা অসহায় দিন যাপন করছেন। না পাচ্ছে না তারা কোনো অনুদান, না পাচ্ছে তারা কোনো সরকারি অনুদান। এদিকে সরকার বিধিনিষেধ করে দিয়েছে ২৫ জনের বেশি লোক নিয়ে কোনো বিয়ের অনুষ্ঠান করা যাবেনা। মার্চ মাসের শেষের দিক দিয়ে লকডাউন শুরু হয় এমনকি অনুষ্ঠানের জন্য অগ্রিম টাকা নেওয়া হয়, পাটির থেকে কাজ না হওয়ার ফলে সেই অগ্রিম টাকা ফেরৎ দিতে হয় জানালেন উত্তর কলকাতার শিবম ফটোগ্রাফির রাজেন বিশ্বাস। তিনি আরো জানালেন লক ডাউন হওয়ার ফলে নেই কোনো আয়, তার মধ্যে অনুষ্ঠান হওয়ার আগে যে অগ্রিম টাকা পার্টি দেয় সেই টাকা টা ও তাদের ফিরিয়ে দিতে হয়। তার ফলে আমরা দিন দিন রোজগার হীন হয়ে পড়ছে না পাচ্ছি কোনো সরকারি অনুদান, এতে আমাদের বেশির ভাগ পরিবারই দিন কাটাচ্ছি অসহায় এর মধ্যে।
এভাবে দিনের পর দিন লক ডাউন চললে চিত্র শিল্প অথাৎ ফটোগ্রাফি ব্যবসা প্রায় ধ্বংসের বন্ধের মুখে এগোচ্ছে। এর ফলে কাজ হারাবে কয়েক লক্ষ্য ফটোগ্রাফার অথাৎ চিত্র শিল্পী। তাই আমরা রাজ্য সরকারের কাছে সাহায্যের জন্য আবেদন করছি।
আদৌ লকডাউন উঠলে কি হবে অনুষ্ঠান? সেই দিকে চেয়ে থাকবে চিত্র শিল্পী অথাৎ ফটোগ্রাফার রা। আর এক ফটোগ্রাফার সুজয় দাসের কথায় যে জানুয়ারী মাসে এবছরে ৭ টা পার্টির সাথে কথা হয়ে ছিলো বিবাহ এর কজের জন্য অনেকে অগ্রিম ও কিচ্ছু দিয়ে যায়। আমি সেই মতো কিছু ফোটোগ্রাফর ভাই দের কিছু অগ্রিম দিয়ে বিবহের তারিখ গুলি বুক করে রাখি, কিন্তু করোনার জন্য লকডাউন হয়ে যায় শুভ অনুষ্ঠান আর করা যাবেন লাগু হয়ে যায়। অগ্রিম টাকা দিয়ে যাওয়া পার্টি গুলি সব শুভ অনুষ্ঠান এখন কয়েক মাস না করার দরুন আমার দিয়ে অগ্রিম ফিরৎ নিয়ে নেয়। খুবই চিন্তার মধ্যে দিন কাটাচ্ছি, আমার মতন হাজার হাজার ফোটোগ্রাফি বন্ধুরা তারা যে কিভাবে দিন কাটাচ্ছেন সেটা ঈশ্বরই জানেন।

Total Page Visits: 262 - Today Page Visits: 1