October 28, 2021

ভারতের সাথে ডেনমার্কের গ্রীন টেকনোলজির বাণিজ্যিক বিষয়ে সাংবাদিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হলো কলকাতার গ্র্যান্ড ওবেরয় হোটেলে

মহন্ত দাশগুপ্ত – কলকাতা

( রয়াল ডেনিস এম্বাসি নিউদিল্লি ) ভারতে ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত ফ্রেডি সেভন কলকাতায় গ্র্যান্ড ওবেরয় হোটেলে একটি সাংবাদিক বৈঠকে বলেন যে, ভারতের সাথে ডেনমার্কের খুবই ভালো সম্পর্ক বহুদিনের। ভারতও খুব ভালো সম্পর্ক বজায় রেখেছে ডেনমার্কের সঙ্গে। যেরকম ভাবেই ভারতের মধ্যে কোনও একটা ভালো জিনিস প্রোডাক্ট বা উৎপন্ন হল সেই উৎপাদিত পণ্য সামগ্রী যেমন বাংলাদেশ সহ বিভিন্ন দেশে বাণিজ্যের জন্য ভারতের শিল্পপতি ও বড় ব্যবসায়ীরা অফার দিতে পারে ওই সব দেশে বাণিজ্য প্রসারের তাগিদে। ঠিক তেমনিভাবেই নির্ভরশীল ভারতে ডেনমার্কও বাণিজ্যের হাত বাড়িয়ে দিতে চায় গ্রীন টেকনোলজি ও অন্যান্য ব্যবসায় নিয়োজিত হওয়ার জন্য। ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, ভারত হলো এক বিশাল দেশ ও নির্ভরশীল দেশ। ভারতের উপরে বিশ্বাস রাখা যায়। যার কারণ হলো ডেনমার্কের সাথে ১৩০ টা ব্যবসা ভারতে প্রায় চল্লিশ বছর ধরে চলছে খুব বিশ্বাসের সাথে। ভারতে যেমন বিশ্বাস আছে ঠিক সেভাবেই এখানে ভালো ব্যবসাও হয়। তাই আমরা ভারতের কাছে আশাবাদী যে তারা ডেনমার্কের শুধু গ্রীন টেকনোলজিই নয়, অন্যান্য ব্যবসার অফারও দেবে ভারতকে। তিনি জানান বাংলার হুগলি জেলায় শ্রীরামপুরে ২০০৮ সালে একটি ডেনিস মিউজিয়াম করা হয়েছে। যেখান থেকে ভারত ও ডেনমার্কের পুরনো ইতিহাস জানা যাবে। শ্রীরামপুরের সাথে ডেনমার্কের অনেক ইতিহাস জড়িয়ে আছে কয়েক শতাব্দী আগে থেকে। শ্রীরামপুরের

লোকাল এজেন্সির মাধ্যমে ও যৌথ উদ্যোগে দুই দেশের ভাবনা ও সম্পর্কের ইতিহাস এখন বহু মানুষ জানতে পারছেন। তাই শ্রীরামপুর মিউজিয়াম থেকে মানুষ আগামী দিনে আরও বহু কিছু জানতে পারবে। আমরা আশাবাদী ডেনমার্কের গ্রীন টেকনোলজি ছাড়াও আরো অন্যান্য বাণিজ্যের বিষয়ে সাড়া দেবে সিটি অফ জয়-এর ভারত। কলকাতার কনস্যুলেট জেনারেল- স্মিতা বাজোরিয়া জানান, বিশেষ করে ডেনমার্ক গ্রিন টেকনোলজির মাধ্যমে ভারতের সাথে গাঁটছড়া বেঁধে ভারতে বানিজ্য করতে চায়। ফরেন টেকনোলজির মধ্যে ডেনমার্কের গ্রীন টেকনোলজি খুবই উন্নত তাই ভারতকে গ্রীন টেকনোলজি অফার করতে চায় ডেনমার্ক। যাতে ভারতের আরো বেশি করে উপকার হবে। দুই দেশের মধ্যে আবার বাণিজ্য সম্পর্ক গ্রিন টেকনোলজির মাধ্যমে আরো একবার নতুন করে গড়তে ও মজবুত করতে চায় ডেনমার্ক। যাতে ভারতে গ্রীন টেকনোলজি ভালোভাবে দেশের স্বার্থে ও দশের স্বার্থে ব্যবহৃত হয়। যদি এই গ্রীন টেকনোলজি ভারতে উন্নতি লাভ করে ও মাথায় তুলে দাঁড়ায় তাহলে অন্যান্য দেশকেও এই টেকনোলজি অফার দেওয়া যেতে পারে। আমি আশা করি যে খুব শিগগিরই ডেনমার্কের এই গ্রীন টেকনোলজি ভারতে প্রবেশ করবে এবং ভারত তা গ্রহণ করবে।

Total Page Visits: 167 - Today Page Visits: 1