July 30, 2021

লকডাউনে ব্যবসা মন্দা সেলুন দোকান দার দের

অন্তরা সুতার: কলকাতা

করোনার থাবায় বিশ্বজুড়ে তৈরি হয়েছে মৃত্যু মিছিল। মিছিলকে রুখতে যথেষ্ট তৎপর ভাবে কাজ করছে সমস্ত দেশের প্রশাসন। এদেশের কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারগুলিও যুদ্ধংদেহী পরিস্থিতিতে কাজ করছে। প্রধানমন্ত্রী বারংবার বাড়াচ্ছেন লকডাউনের সময়সীমা। দীর্ঘদিন গৃহবন্দী থাকায় রীতিমতো মানসিক অবসাদে ভুগছেন অনেকেই। সকলেই দিন গুনছেন কবে শেষ হবে এই লকডাউন। ইচ্ছে মতো আবারও ঘুরে বেড়াতে পারবেন ইতিউতি। লকডাউনের জেরে অনেকেরই রোজগার একেবারে বন্ধ। ঠিক এরকমই চিএ দেখা যাচ্ছে শহরের সেলুন দোকান গুলিতে। রাজ্য সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী সব দোকান খোলা যাবে না। যার ফলে ব্যবসা একেবারে শিকেয় উঠেছে সেলুন দোকানদারের। কথার বলে, একটি দরজা বন্ধ হলে খুলে যায় অন্য দরজা। ঠিক সেরকমই অন্যভাবে উপার্যন করছে তাঁরা। লকডাউনে বাড়িতে থাকার কারণে অনেকেই তাদের ডেকে নিয়ে যাচ্ছেন নিজের বাড়িতে চুল দাড়ি কামানোর জন্য। আর তাঁরাও তেমনি সরঞ্জাম নিয়ে হাজির হচ্ছেন। অনেক নাপিতের কাছে তো একদিন আগে থেকেই চুল কাটার জন্য বায়না করে রাখতে হচ্ছে। তবে লকডাউনের জন্য তাদের চুল দাড়ি কামানোর দাম খানিকটা বাড়িয়েছেন, এমনটাই জানালেন এক নাপিত। তিনি বলেন, “দক্ষিণ কলকাতায় আমার সেলুন দোকান। ভালোই ব্যবসা হয় প্রতিদিন বিশেষত ছুটির দিনগুলোতে নিঃশ্বাস ফেলার সময় থাকে না। আর এখন লকডাউনের জন্য ব্যবসা পুরো বন্ধ। যার কারণে বাড়ি বাড়ি গিয়ে কাজ করতে হচ্ছে। তাই রেটটাও একটু বাড়িয়েছি”। তবে এখনও লকডাউন শেষ হতে বেশ কয়েকদিন বাকি। অনেকেই মনে করছেন এই লকডাউনের সময়সীমা হয়তো আরো বাড়বে। তাই অনেকেই চুল না কেটে পুরো মাথায় চুল কামিয়ে ফেলছেন। এমন একজন ব্যক্তি বলেন, ” বাড়িতে এসে চুল কাটানোর জন্য অনেকটাই বেশি টাকা নিচ্ছে নাপিত। তাছাড়া গরমও পড়েছে বেশ ভালোরকম ভাবে তাই পুরো মাথার চুল কামিয়ে দিতে বলি। তাছাড়া অফিস কবে যেতে পারবো জানিনা তাই। ততদিনে চুল আবারও উঠে যাবে”।

Total Page Visits: 183 - Today Page Visits: 1