March 7, 2021

সাউথ দমদম অ্যাডভেঞ্চার ট্রেকার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন এর পক্ষ থেকে দক্ষিণেশ্বর ত্রাণ বিতরণ

সুবল সাহা: কলকাতা

তারা অভিযাত্রীর দল গিরিপথ বেয়ে দুর্গম অঞ্চলে ঘুরে বেড়ানো তাঁদের নেশা। প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে বিপদসংকুল পাহাড়ে চড়াটাও তাঁদের কাছে চ্যালেঞ্জের। যাঁদের পায়ে পায়ে মৃত্যুভয়, জীবনটা তাঁদের কাছে পূর্ণিমার চাঁদের মত। সেই জীবনের প্রতিটি পল-কে সেকেন্ডের হিসাবে গুনে চলতে চলতে অন্যের জীবনকেও তাঁরা জড়িয়ে নিয়েছেন পূর্ণিমার চাঁদেরই মত। করোনার অন্ধকারাচ্ছন্ন অমাবস্যার রাতকে যাঁরা সেই চাঁদের আলোয় উদ্ভাসিত করে চলেছেন লকডাউন দুর্গতদের পাশে দাঁড়িয়ে- তেমনই একটি সংগঠন হল সাউথ দমদম অ্যাডভেঞ্চার ট্রেকার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন। গত একমাস ধরে তাঁরা বিভিন্ন অঞ্চলে লকডাউন দুর্গত মানুষদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন প্রয়োজনীয় খাবার নিয়ে। সম্প্রতি সংগঠনের পক্ষ থেকে নিষ্ঠাবান সদস্যরা হাজির হয়েছিলেন দক্ষিণেশ্বর জেটি ঘাট সন্নিহিত নিবেদিতা পল্লীতে। সেখানকার নিম্ন আয়ের ১৬০ জনের হাতে তুলে দেন শুকনো খাবার – যার মধ্যে ছিল চিড়ে, মুড়ি, ছাতু, ছোলা, বিস্কুট, চিনি ইত্যাদি। উক্ত শিবিরে দক্ষিণ দমদম পৌরসভার

কাউন্সিলর প্রবীর পাল (কেটি) উপস্থিত থেকে নিজ হাতে দুর্গতদের খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন। পল্লিবাসীর পক্ষে সমাজসেবী প্রশান্ত মন্ডল সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেন। মাসখানেক ধরে উক্ত সংগঠন দমদম, দক্ষিণ দমদমে সমাজসেবায় লিপ্ত থাকলেও, প্রবীর পালের তত্ত্বাবধানে সন্ধানী দৃষ্টিতে বেছে নিয়েছিলেন দক্ষিণেশ্বরের নিবেদিতা পল্লীর মত নিম্ন আয় সম্পন্ন অঞ্চলটিকে। কাউন্সিলর প্রবীর পাল বলেন, এই মুহূর্তে মানুষের রুজি রোজগার বন্ধ। বিশেষ করে নিম্ন আয় সম্পন্ন মানুষেরা আরো বেশি ভুক্তভোগী। তাই সেই দৃষ্টিভঙ্গিতে সকলের সহযোগিতা নিয়ে ট্রেকার্স অ্যাসোসিয়েশন তাদের সাধ্যমত খাদ্য সামগ্রী নিয়ে দুর্গত মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে সহমর্মিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। বিপদের দিনে মানুষের পাশে দাঁড়ানোটাই সমাজসেবার প্রকৃষ্ট উদাহরণ। ত্রাণ পেয়ে খুশী হয়েছেন সকলেই পল্লিবাসীর একাংশের মতে, এই মুহূর্তে খাদ্য সামগ্রী পাওয়ার কোন বিশেষণ হয় না। কিন্তু যাঁরা দিচ্ছেন, তাঁরা অন্তত আমাদের না খেতে পেয়ে মরার হাত থেকে বাঁচিয়ে তুলছেন।

ছবি: এস,সাহা।

Total Page Visits: 211 - Today Page Visits: 1