August 14, 2022

করোনা সংক্রমণ ও লকডাউন এর ফলে বন্ধ পূজা অনুষ্ঠান তাই কাজ হারিয়ে বাংলায় চরম সমস্যার মধ্যে মৃৎ শিল্পীরা

দীপক ঘোষ – দমদম

করোনা সংক্রমনের আবহে বন্ধ পূজা অনুষ্ঠান কাজ হারিয়ে চরম সমস্যায় মৃৎশিল্পীরা। করোনা সংক্রমণ ছিন্নভিন্ন করে দিয়েছে স্বাভাবিক জীবনের ছন্দ। প্রতিদিন বাড়ছে সংক্রমণ রুজি রুটি হারিয়ে তীব্র সংকটে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। এই পরিস্থিতিতে জীবনে অন্ধকার নেমে এসেছে মৃৎ শিল্পী দের। উল্লেখ্য দমদমের আর এন গুহ রোডের বাসিন্দা মৃৎ শিল্পী গোবিন্দ পাল। তিনি বিভিন্ন জায়গার অনুষ্ঠানে প্রতিমা বানিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। তবে বর্তমানে করোনা সংক্রমণের আবহে বন্ধ রয়েছে অনুষ্ঠান।কঠোর ভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশ রয়েছে। স্বাভাবিক কারণেই বন্ধ সমস্ত বিভিন্ন পূজা অনুষ্ঠান হাতে কাজ নেই মৃৎশিল্পীদের। চরম আর্থিক সংকটের মধ্যে

রয়েছেন তারা। প্রত্যেক অনুষ্ঠানে মৃৎশিল্পীরা প্রচুর টাকা আয় করতেন। কিন্তু গত মার্চ মাস থেকে রোজগার বন্ধ মৃৎ শিল্পীদের। কোনরকমে চলছে তাদের সংসার। এমত অবস্থায় চরম আর্থিক সংকটের মধ্যে রয়েছেন তারা। তাই নিউজবেঙ্গল অনলাইনএর প্রতিনিধি কে মৃৎশিল্পী গোবিন্দ পাল জানালেন তাদের আর্থিক সংকটের কথা। করোনা সংক্রমণের জন্য সব রকমের অনুষ্ঠান বন্ধ। আমাদের রোজগারের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সমস্যায় পড়ে যাব। দুশ্চিন্তার মধ্যে রয়েছি, দমদম আর এন গুহ রোডের বাসিন্দা মৃৎশিল্পী গোবিন্দ পাল তার এলাকায় প্রতিমা বানিয়ে যথেষ্ট সুনাম অর্জন করে চলেছেন। কিন্তু করোনা আবহে ও লকডাউন এর ফলে তাদের না খাওয়ার মতো অবস্থা। তাই তাদের দিন দিন অসহায় মধ্যে দিনযাপন করতে হচ্ছে। এবারে আদৌ কি হবে দুর্গাপূজা? তাই নিয়ে তিনি বললেন আমরা এখনো

কোন ঠাকুর বানানোর কোন অর্ডার সেরকম এখনো পায়নি।আগের বারের মতো এবারও আমরা এই দিনে প্রতিমা রং করতে শুরু করে দিই। কিন্তু কিন্তু করোনা সংক্রমণের জন্য এবারে কোন রকম পূজোর সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। তাই আমরা ঠাকুর বানাতেও ভরসা পাচ্ছি না। তাই আমাদের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন আমরা নিরুপায় আমাদের নেই কোনো আয় আমাদের একটু দেখবেন। এবারের দূর্গা পূজায় যদি তাদের কোন আয় না হয় তবে তাদের পরিবার অসহায় এর মধ্যে দিনযাপন করবেন।

About Post Author

Total Page Visits: 275 - Today Page Visits: 1