September 27, 2022

গানে গানে শোনালেন যুদ্ধ বিরোধিতার কথা অনুপ জলোটা, পন্ডিত প্রদ্যুৎ মুখার্জি, কিশোর সোধা

                 

নিজস্ব প্রতিনিধি –

যুদ্ধ কোনো মূল্যে কাম্য নয়। কে কখন যুদ্ধ করছে, কিসের জন্য হচ্ছে, যুদ্ধ শুধুই দুঃখের স্মৃতিই এনে দেয়। আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে যুদ্ধের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। যুদ্ধ আমাদের সমাজের জন্য অভিশাপ ছাড়া আর কিছুই নয়। সেই কথাই উঠে এল সঙ্গীতের মাধ্যমে, পরিবেশিত হলো শান্তির-সম্প্রীতির বার্তা জিমা পুরষ্কার বিজয়ী সঙ্গীতশিল্পী পন্ডিত প্রদ্যুৎ মুখার্জির তত্ত্বাবধানে “রোশনি হো শরহাদোঁ মেঁ” গানে।রিলিজ হলো পন্ডিত মুখার্জির অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে। গানটি গেয়েছেন পদ্মশ্রী অনুপ জলোটা, প্রখ্যাত গায়ক সুপ্রতীক দাস, ট্রাম্পেট বাজিয়েছেন প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী কিশোর সোধা, পিয়ানো বাজিয়েছেন অভীক গাঙ্গুলী, গানটি লিখেছেন নীতু সাইনি। সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন পন্ডিত প্রদ্যুৎ মুখার্জি। অনুপ জলোটা বলেন, “পন্ডিত প্রদ্যুৎ মুখার্জির সাথে কাজ করে আমার অনেক আনন্দ হয়। তিনি একটি সুন্দর শিরোনাম রোশনি হো শারহাদোঁ মেঁ গানটির জন্য সঙ্গীত রচনা করেছেন। পন্ডিত

প্রদ্যুৎ মুখার্জি একজন অলরাউন্ডার,  তিনি যেমন তবলা বাজান, গানের সুরও করেন।” কিশোর সোধা বলেন, “এটি সত্যিই একটি শান্তির গান। আমি এই গানে  ট্রাম্পেট বাজিয়েছি। এই গানের কথা খুবই অর্থবহ।” পন্ডিত প্রদ্যুৎ মুখার্জি বলেছিলেন, “যুদ্ধ আমাদের জীবনে নেতিবাচকতা নিয়ে আসে। চারপাশে কেবল ধ্বংসই দেখা যায়। এটি আমাদের জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলে। এটি অর্থনীতির জন্যও অত্যন্ত ক্ষতিকর। এটি জীবনের সাথে একটি জুয়া খেলার মতো। আমরা অসংখ্য জীবন হারাই। তাই যখন রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়ে গেল, সোশ্যাল মিডিয়া, নিউজ চ্যানেলে ভাসতে লাগল ধ্বংসযজ্ঞের ছবি, এমনকি লাদাখে ভারত-চীনের মধ্যে উত্তেজনা নতুন ভাবে দেখা দিল, একটি গান তৈরি করার এই ভাবনাটি আমার মনে উঁকি দিল। আমি সবার কাছে আমার ইচ্ছা প্রকাশ করলাম। একটি নতুন গান রেকর্ড করার জন্য অনুপ জি, কিশোর জি, সবাই একমত হলেন। অবশেষে, এটি বিশ্ব পরিবেশ দিবসে প্রকাশিত হলো যেটি আমার জন্মদিনও। এটি সুদীপ্ত চন্দের ভাবনায় সুন্দরভাবে পরিস্ফুট । আশা করি এই কাজ সবার ভালো লাগবে।”

About Post Author

Total Page Visits: 143 - Today Page Visits: 1