August 14, 2022

বিজেপি বিরোধী দলগুলির ষড়যন্ত্রের দাবি মেনেই নিল ন্যারোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো, বেকসুর খালাস শাহরুখ পুত্র আরিয়ান।

সুজিৎ চট্টোপাধ্যায় –

২০২২ এর ১৩ নভেম্বর বলিউডের বেতাজ বাদশা শাহরুখ খান ছেলে আরিয়ানের জন্মদিন যে পালন করবেন ধুমধাম করেই, একথা বলা যেতেই পারে। ২০২১ এর ১৩ নভেম্বর ছেলের এবং নিজের জন্মদিন ২ নভেম্বর পালন করেননি শাহরুখ। করবেন কি করে? আরিয়ান ছিলেন জেলে । মাদক কেসে বন্দী ছিলেন আরিয়ান। দেশজুড়ে সে এক আলোড়ন। সেই মুহুর্তে মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী নবাব মালিক চাঞ্চল্যকর দাবি জানিয়ে বলেছিলেন, শাহরুখ পুত্রকে মিথ্যে মামলায় জড়িয়েছে প্রশাসন। শাহরুখের অপরাধ, তিনি বিজেপির সমর্থক নন। একই দাবি ছিল, কংগ্রেস সহ্য বেশ কয়েকটি বিরোধী দলের। এর পর মুম্বাইয়ের আরব সাগরে অনেক জল গড়িয়েছে। আটমাস পর নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো তাদের তদন্ত সিট গঠন করেছিল। সেখানে ক্লিনচিট পেয়েছেন আরিয়ান। সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে, আরিয়ান খানকে ফাঁসানোর জন্যই তদন্তকারী অফিসার সমীর ওয়াংখেড়ে এক নাটক সাজিয়েছিলেন।

কে এই সমীর ওয়াংখেড়ে? কি দাবি করেছিলেন সমীর? ফিরে যেতে হবে অতীতের সেই দিনগুলিতে। ২০২১। অক্টোবর মাস। গোটা দেশ যখন রাত্রিকালীন লকডাউন থেকে মুক্তি পেয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন, বাংলার মানুষ যখন আসন্ন দুর্গাপুজোর প্রস্তুতিতে মগ্ন, তখনই ব্রেকিং নিউজ এলো, রাজ্যের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর শাহরুখ পুত্র আরিয়ান নার্কোটিক কন্ট্রোল ব্যুরোর আই আর এস অফিসার সমীর ওয়াংখেড়ে ও তাঁর সহকর্মীদের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন। সংবাদসূত্র জানিয়েছিল, ২০২১ এর গান্ধী জয়ন্তীর রাতে মুম্বাই থেকে গোয়া এক বিনোদন ট্রিপের আয়োজন করা হয়। মুম্বাই বন্দর থেকে ছাড়ার কথা এক বিলাসবহুল তরণী। সেই তরণী যা ক্রুজ নামে পরিচিত, সেই ক্রুজের নাম কর্ডেলিয়া। এই ধরনের প্রমোদভ্রমণের নাম রেভ পার্টি। এই বিলাসবহুল ভ্রমণের আয়োজন করে বিখ্যাত সংস্থা কের্ডলিয়ার। মুম্বাই থেকে গোয়া ও মুম্বাই ফিরে আসার খরচ ৮০ হাজার থেকে আড়াই লাখ। জাহাজে পা রাখলেই ওয়েলকাম ড্রিংকস।vরাতের ডিনার থেকে পরের দিন প্রাতরাশ। সঙ্গে গিফ্ট ভাউচার। তবে গিফ্ট ভাউচারের একটাই শর্ত। পুরোটাই খরচ করতে হবে যাত্রাপথে। ছোটদের জন্যও হাজার বিনোদন । বড়দের রক ক্লাইম্বিং, টেবিল টেনিস, জিং, স্পা, সুইমিং পুল । কি নেই। সব পেয়েছির আসর। বলিউড গানের সঙ্গে নাচের ফ্লোর তো আছেই।

সেখানেই ওৎ পেতে অপেক্ষা করছিলেন নার্কোটিক কন্ট্রোল ব্যুরোর অফিসারেরা। নেতৃত্বে সমীর ওয়াংখেড়ে। সোর্স আগেই খবর দিয়েছিল, এই প্রমোদতরণীতে বেআইনি মাদকের কেনাবেচা ও বেআইনি মাদক ব্যবহার হবে। নার্কোটিক কন্ট্রোল ব্যুরোর জোনাল ডিরেক্টর সমীর ওয়াংখেড়ে তাঁর ১২ জনের দল নিয়ে যাত্রী সেজে বসেছিলেন জাহাজের ডেকে। জাহাজ নির্দিষ্ট সময়ে চলতে শুরু করতেই নাকি পার্টি শুরু হয়ে যায়। নার্কোটিক ব্যুরো জাহাজের টার্মিনাল থেকেই ১৩ গ্রাম কোকেন ,২১গ্রাম চরস, এম ডি এম বা এক্সট্যাগির ২২টি পিল ও নগদ ১ লক্ষ ৩৩ হাজার টাকা উদ্ধার করে । আটক করা হয় দুই মহিলা সহ আট জনকে। এঁদের মধ্যে ছিলেন শাহরুখ পুত্র আরিয়ান, আরবাজ মার্চেন্ট, সমিত চোপড়া, বিক্রম ছোকর, মোহক জয়সওয়াল, ইসমিত সিং, নুপুর সারিকা, মুনমুন ধিমচাও। নার্কোটিক ব্যুরোর পক্ষে সমীর ওয়াংখেড়ে দাবি করেন, শাহরুখ পুত্র আরিয়ান স্বীকার করেছেন, তিনি মাদক নিয়েছেন।

খবরটা শাহরুখের কাছে পৌঁছতে সময় লাগেনি। তিনি মুম্বাইয়ের সেরা ক্রিমিনাল ল’ ইয়ার সতীশ মান শিন্দেকে নিয়োগ করেন। রাজনৈতিক মহলেও সোরগোল পড়ে যায়। কংগ্রেস সহ বিরোধী দলগুলি বলতে শুরু করে, কয়েকদিন আগে গুজরাটের মুদ্রা বন্দরে প্রায় ৩২কেজি হেরোইন উদ্ধারের ঘটনা ঢাকতে এনসিবি এই নাটকের আয়োজন করে বিনা কারণে শাহরুখ পুত্রকে গ্রেপ্তার করেছে । সবচেয়ে বেশি সোচ্চার হন মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকারের প্রধান শরিক দল এন সি পির মন্ত্রী নবাব মালিক। কেননা এর আগে নবাবের দাবি, একই কেসে তাঁকে ও তাঁর এক আত্মীয়কে ফাঁসানো হয়েছিল।vবর্তমানে নবাব মালিক হাওলা কাণ্ডে দাউদ ইব্রাহিমের ঘনিষ্ঠদের সঙ্গে যোগাযোগের অভিযোগে ইডির জালে বন্দী। রাজনীতির অনেক জল ঘেঁটে নবাব ২০১৯ সালে বিজেপির বিরূদ্ধে মহারাষ্ট্রের প্রধান মুখ হয়ে ওঠেন। গতবছর জানুয়ারিতে নবাবের জামাইকে ব্রিটিশ নাগরিকের কাছ থেকে মাদক কেনার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে জামিল পান জামাই। তখনও ষড়যন্ত্রের অভিযোগে সোচ্চার হন নবাব মালিক। এরপর আরিয়ান গ্রেপ্তার। নবাব অভিযোগ তোলেন, বিজেপির হয়ে অফিসার সমীর ওয়াংখেড়ে এই কাজ করেছেন। শেষ পর্যন্ত আরিয়ান কাণ্ড থেকে সমীরকে সরানো হয়। এরপরই নবাব ইডির হাতে গ্রেপ্তার।আরিয়ান মামলা আট মাস ধরে চলে। বান্দ্রার শাহরুখের বাড়ি মান্নতেএতদিন বিষাদের ছায়া ঘিরে ছিল। কাশ্মীরের পি ডি পি নেত্রী মেহবুবা মুফতি ও অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর সহ বেশ কয়েকজন বিজেপি বিরোধী অভিনেতা অভিনেত্রী প্রতিবাদী কণ্ঠ হয়ে ওঠেন। সেই সময় বেশ কয়েকবার আরিয়ানের জামিল অগ্রাহ্য হয়। তদন্তকারী অফিসার সমীর জানিয়েছিলেন, বিজেপি বিরোধী শক্তি ও মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকারের বিষনজরে আছেন তিনি। তাঁকে রাজ্য সরকার বিনাকারণে গ্রেপ্তার করতে পারে। অন্যদিকে আরিয়ানের আইনজীবী সতীশ মানশিন্দে দাবি করেন, শাহরুখ পুত্র ওই ক্রুজে সেদিন উপস্থিত ছিলেন বিশেষ আমন্ত্রিত হিসেবে। তাঁর কোনো বোর্ডিং পাশ ছিল না। আরিয়ানের কাছে কোনো মাদক ছিল প্রমাণিত নয়। তবে কেন গ্রেপ্তার?

সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ এই প্রথম নয়। সমীর এর আগে হিসাব বহির্ভূত সম্পত্তি ও কর ফাঁকির অভিযোগে প্রায় দুহাজার সেলিব্রেটির বাড়ি তল্লাশি করেছেন। তালিকায় ছিলেন, অনুরাগ কাশ্যপ, বিবেক ওবেরয়, রামগোপাল বার্মা ও চাঙ্কি পাণ্ডের কন্যা সহ অনেকে। এই সমীর মুম্বাই বিমানবন্দরে বিদেশি মুদ্রা সহ আটক করেন গায়ক মিকা সিংকে। এমনকি ২০১১সালে মুম্বাই বিমানবন্দরে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ট্রফি আটকে দেন আমদানি শুল্ক না দেওয়ার জন্য। শেষপর্যন্ত আমদানি শুল্ক দিয়ে ট্রফি ছাড়াতে হয়। এই অফিসারের স্ত্রী ক্রান্তি। অজয় দেবগনের গঙ্গাজল ছবিতে যিনি অভিনয় করেছিলেন। যমজ কন্যার পিতা সমীর। তাঁর বিরুদ্ধে ব্ল্যাকমেল করে টাকা আদায়েরও অভিযোগ আছে ।

মুম্বাই টিনসেল টাউনে শিল্পীদের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবহারের অভিযোগ প্রথম নয়। ১৯৮২সালে গ্রেপ্তার হন সঞ্জয় দত্ত। গ্রেপ্তার হন ফারদিন খান, আরমান কোহলি। সুশান্ত সিং রাজপুত কাণ্ডে গ্রেপ্তার হন রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর ভাই সৌভিক। ২০২০তে নভেম্বর মাসে গ্রেপ্তার হন অভিনেত্রী , অ্যাঙ্কর ভারতী সিং ও তাঁর স্বামী হর্ষ লিম্বাচিয়া। গ্রেপ্তার হন স্মিতা পাতিল ও রাজ বব্বর পুত্র প্রতীক বব্বর,কল্পনা রানাউত। আরিয়ান কাণ্ডে বিজেপি সমীরের পক্ষ অবলম্বন করলেও বিরুদ্ধ প্রতিবাদ সোচ্চার হয়ে ওঠায় বাধ্য হয়ে নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো সিট গঠন করে তদন্ত শুরু করে। গতকাল সোমবার সেই তদন্তে ক্লিনচিট পেলেন শাহরুখ পুত্র আরিয়ান। তদন্ত রিপোর্টে বলা হয়েছে, মাদক মামলায় জড়ানোর জন্যই আরিয়ানকে মিথ্যে ফাঁসানো হয়েছে। তদন্তকারী অফিসার সমীর ওয়াংখেড়ে শাহরুখ পুত্রের ফোন বাজেয়াপ্ত করার সময় উপযুক্ত প্রক্রিয়া মানেননি। এন সি বি ডিরেক্টর বেশ এন প্রধান বলেন, নির্দোষ কোনও ব্যক্তিকে এভাবে ফাঁসানো বিরলের মধ্যে বিরলতম ঘটনা । এরপরই আসে ব্রেকিং নিউজ।সমীরকে সংশ্লিষ্ট বিভাগ মুম্বাই থেকে গুরুত্বপূর্ণ পদ থেকে সরিয়ে চেন্নাইয়ের ডিরেক্টর জেনারেল অফ ট্যাক্সপেয়ার সার্ভিস বিভাগে বদলি করে দেওয়া হয়েছে । সূত্রের খবর, দিল্লির স্বরাষ্ট্র বিভাগ সমীরের প্রতিহিংসাপরায়ণ কাজে যে নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর মুখ পুড়েছে বুঝেই সমীরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সেই সিদ্ধান্ত গতকাল ঘোষিত হলো। আরিয়ানের পাসপোর্ট এতদিন আটক ছিল।এখন আরিয়ান সেটা দ্রুত ফিরে পাবেন। ঘনিষ্ঠ মহলের খবর, তিক্ত স্মৃতি ভুলে আরিয়ান মুম্বাই ছেড়ে আমেরিকায় চলে যাবেন। সংবাদ সূত্রের আরও খবর, এই সংশ্লিষ্ট বিভাগের স্বীকারোক্তিতে মুখ পুড়েছে বিজেপিরও ।

About Post Author

Total Page Visits: 30 - Today Page Visits: 2