August 14, 2022

র‍্যালিস ইন্ডিয়া লিমিটেড বাজারে প্রথম আনল ছত্রাকনাশক দুই কীটনাশক কেমিক্যাল জোফু ও ক্যাপস্টোন

শ্রীজিৎ চট্টরাজ –

উপনগরী নিউটাউনের এক বিলাসবহুল হোটেলে রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে চাষের প্রয়োজনীয় রোগ প্রতিরোধক রাসায়নিক বিক্রির ডিলার ডিস্ট্রিবিউটরদের ভিড়। তাঁদের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন টাটা গোষ্ঠীর একটি সংস্থা র‍্যালিস ইন্ডিয়া লিমিটেড।সংস্থা ধান চাষের ক্ষেত্রে রোগের প্রতিষেধক দুটি কেমিক্যাল বাজারে প্রথম নিয়ে আসার জন্য আমন্ত্রণ। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত হয়েছিলেন সাংবাদিকেরাও । দুপুরে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে হাজির ছিলেন, সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সি ই ও সঞ্জীব লাল ও সি ও ও এস নাগরাজন প্রমুখ।

সংস্থার পক্ষে জানানো হয়, টাটা গ্রুপের অন্যতম সংস্থা কৃষি রসায়নের সামগ্রী নির্মাতা হিসেবে দেশের কৃষক সম্প্রদায়ের সঙ্গে সম্পর্ক বহু যুগের। এই মুহূর্তে দেশে সর্বপ্রথম দানাদার ছত্রাকনাশক কেমিক্যাল জাফু বাজারে আনল। স্প্রে করার ঝামেলা নেই। রোগমুক্ত ফসল পেতে এবং দীর্ঘকালীন ফসলে নিয়ন্ত্রণ রাখতে যা সম্পূর্ণ সহায়ক। ধান চারা রোপণের ১৫ থেকে ৬৫ দিনের মধ্যে ৪ কেজি দানাদার জাফু প্রতি একর জমিতে বালি বা ইউরিয়ার সঙ্গে মিশিয়ে প্রয়োগ দরকার। কৃষক বন্ধুদের লক্ষ্য রক্তে হবে এই কেমিক্যাল প্রয়োগ করার আগে জমিতে জল যেন ৩ থেকে ৫ সেন্টিমিটার থাকা দরকার। জল যেন জমিতে দুদিন থাকে। তাহলেই জোফু ম্যাজিকের মত কাজ করবে। .

সংস্থার পক্ষে আরও জানানো হয়, জোফুর সঙ্গে ধানের শীষ ঝলসা রোগের প্রতিষেধক হিসেবে র‍্যালিস ইন্ডিয়া লিমিটেড আরও একটি নিবেদন ক্যাপস্টোন। ২০০ লিটার জলে ৪০০ মিলি লিটার ক্যাপস্টোন প্রয়োগ সঠিক পদ্ধতি। প্রয়োগের সময় ধান চারা রোপণের ৫৫থেকে ৬৫ দিন পর। বৃষ্টি হলেও ধুয়ে যাওয়ার ভয় নেই। এই রাসায়নিকে আছে ফাইটোডাইনা নামে একটি উপাদান। যা ফসলের শ্যামলতা বজায় রাখে।

ভারতে মোট চাষযোগ্য জমির পঞ্চাশ শতাংশেই ধান চাষ হয়। বিশ্বে চিনের পরই দ্বিতীয় সেরা ধান উৎপাদনের দেশ ভারত। ২০১১_১২ সালের তথ্য অনুযায়ী প্রতি হেক্টরে ধান চাষ হয় ৩ হাজার ৫ শো ৯১ কেজি। দেশে ধান উৎপন্ন হয় ১৫.২০ কোটি টন।দেশের মধ্যে ধান চাষে বাংলাও দ্বিতীয় স্থানে। চিন জাপান, উত্তর কোরিয়া হয়ে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া থেকে নেপাল। সেখান থেকে ভারতে ধান চাষের প্রচলন। টাটা গ্রুপের এই নতুন দুটি মুস্কিল আসান রাসায়নিক প্রতিষেধক জোফু ও ক্যাপস্টোন দেশের তথা ভারতের কৃষক বন্ধুদের সহায়ক হয়ে দেশের কৃষি বিকাশে সহায়ক হবে।

About Post Author

Total Page Visits: 55 - Today Page Visits: 2