September 27, 2022

সল্টলেক সেক্টর ফাইভে আধুনিক ভিসা এপ্লিকেশন সেন্টার চালু করল বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিনিধি –

বাংলাদেশ কলকাতায় বৃহত্তম ভিসা আবেদন কেন্দ্র উদ্বোধন করেছে। ১৬ ডিসেম্বর ৫১ তম বিজয় দিবস উদযাপনের দিনে, কলকাতা থেকে বাংলাদেশগামী ভ্রমণকারীদের জন্য নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্রের উদ্বোধনের মাধ্যমে বাংলাদেশ একটি নতুন মাত্রা যোগ করেছে। একেবারে নতুন অত্যাধুনিক ভিসা অ্যাপ্লিকেশন সেন্টার ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডঃ এ. কে. আব্দুল মোমেন, এম পি । তিনি বলেন, “বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন কলকাতা বহি-বিশ্বে স্থাপিত সব বাংলাদেশী মিশণের মধ্যে সর্বাধিক ভিসা ইসু কারি মিশন। ভারতীয় নাগরিকদের উন্নত ভিসা সেবা প্রদানের লক্ষে বাংলাদেশ সরকার কলকাতা মিশনে ভিসা আউট সোর্সিংএর উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। ১৩০০০ বর্গফুটের বিশাল আয়তনের সম্পূর্ণ শীততাপ নিয়ন্ত্রিত অত্যাধুনিক বাংলাদেশ ভিসা এপ্লিকেশন সেন্টার কলকাতার সল্টলেক সেক্টর ফাইভের প্রান কেন্দ্রে অবস্থিত. কলকাতায় এটি হবে শহরের বৃহত্তম একদেশীও ভিসা আবেদন কেন্দ্র ।“

আগামী ২০ ডিসেম্বর থেকে ট্যুরিস্ট ভিসা ব্যতীত অন্যান্য ভিসা পরিষেবা চালু হবে | এই ভিসা কেন্দ্র কে দশ টি কাউন্টার দিয়ে সজ্জিত করা হয়েছে. এখান থেকে সমস্ত ভিসা বিভাগে সেবা প্রদান করা হবে । ভিসা আবেদন কেন্দ্রে ভিসা ফর্ম পূরণ করার জন্য আবেদনকারীদের বিনামূল্যে ওয়াইফাই এবং স্ব-সহায়তা ডেস্ক থাকছে. আবেদনকারী দের নামমাত্র চার্জে একটি ফটো ডেস্ক, ফটোকপির পরিষেবা, ব্যক্তিগত লাউঞ্জ এবং কুরিয়ার পরিষেবা প্রদান করা হবে, এর সঙ্গেই গাড়ি এবং দুই চাকার জন্য যথেষ্ট পার্কিং ব্যবস্থা থাকছে।

কলকাতার বিশিষ্ট সল্টলেকে ইনফিনিয়াম ডিজিস্পেসে অবস্থিত, সোমবার থেকে শুক্রবার সকাল ৯:00 টা থেকে বিকাল ৩ টার মধ্যে ভিসার আবেদনগুলি গ্রহণ করা হবে। এটি যাত্রীদের জন্য তাদের স্ট্যাম্পযুক্ত পাসপোর্ট সংগ্রহের জন্য দুপুর ১ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। ডিউ ডিজিটাল গ্লোবাল এবং ভিএফএস গ্লোবাল দ্বারা যৌথ ভাবে পরিচালিত নতুন সুবিধা পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা, বিহার, ঝাড়খণ্ড, ছত্তিশগড় এবং সিকিম ভিত্তিক শত শত ভ্রমণকারীদের ভিসার অভিজ্ঞতা সহজ করবে।

“অনেক দীর্ঘ কর্ম ঘণ্টা এবং আরও অনেক পরিষেবার উইন্ডোর সাথে, আমরা গ্রাহকদের আরও দক্ষ এবং আনন্দদায়ক অভিজ্ঞতা প্রদানের আশা করি। সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত সুবিধা ভিসা আবেদন নির্বিঘ্ন করতে সমস্ত সুযোগ-সুবিধা দিয়ে সজ্জিত,” বলেন ডি উ ডিজিটাল গ্লোবালের সিইও শিভাজ রাই।

নতুন সুবিধাটি খোলার মাধ্যমে, বাংলাদেশ সরকার অনেক বেশি পরিমাণে ভিসা প্রক্রিয়াকরণ এবং বাংলাদেশে পর্যটন বৃদ্ধির আশা করছে। বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনার, মান্যবর তৌফিক হাসান জানান , “আজ বাংলাদেশের বিজয়ের সুবর্ণ জয়ন্তীতে এবং বাংলাদেশ ভারত মৈত্রীর ৫০বছর পূর্তির এই মাহেন্দ্রক্ষণে কলকাতায় বাংলাদেশ ভিসা এপ্লিকেশন সেন্টার উদ্বোধন করতে পেরে আমরা সত্যিই খুব আনন্দিত এর মাধ্যমে ভারতীয় নাগরিক গণ আমাদের উন্নত ভিসা পরিষেবা পাবেন যা আমাদের দীর্ঘদিনের একটি প্রচেষ্টা আমি এই বাংলাদেশ ভিসা সেন্টার স্থাপনের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই” সোনালী ব্যাঙ্ক হলো ভিসা এপ্লিকেশন সেন্টার এর ব্যাঙ্কিং পার্টনার।

About Post Author

Total Page Visits: 184 - Today Page Visits: 2